টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলায় সরিষাক্ষেতে মৌ-চাষ পদ্ধতি বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলায় সরিষাক্ষেতে মৌ-চাষ পদ্ধতি বাড়ছে। এতে সরিষার ফলন ২০ শতাংশ বেড়েছে। টাঙ্গাইলের বাসাইল, কালীহাতি, ভূঞাপুর নাগরপুরসহ বিভিন্ন উপজেলায় সরেজমিন দেখা যায়, দিগন্তজুড়ে সরিষাক্ষেত এবং মৌ-মৌ গন্ধে ক্ষেতের চারপাশে মিষ্টি ঘ্রাণ। এরই মাঝে সারিবদ্ধ মৌবাক্স। প্রতিদিন সকালে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৌচাষিরা।

এ উপজেলায় মৌ-চাষ বাড়ছে। মৌবাক্স স্থাপনে সরিষার ফলন ২০ শতাংশ বাড়ায় মৌচাষিদের আমন্ত্রণ জানিয়ে ক্ষেতের পাশে মৌ-বাক্স স্থাপনের সুযোগ করে দিচ্ছেন চাষিরা।

তারা জানান, আগে ভাবতাম মৌ-বাক্স স্থাপন করলে সরিষার ক্ষতি হয়, কিন্তু এখন দেখছি যে ফলন ভালো আসে।

তবে এতে কাঙ্ক্ষিত মধু সংগ্রহ করতে পারলেও মধুর দামে হতাশ মৌচাষিরা। তাদের অভিযোগ, খরচের তুলনায় মধুর দাম কম।

এদিকে কৃষকদের সার্বিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইলের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতের উপপরিচালক কৃষিবিদ মো. আহসানুল বাসার।

তিনি বলেন, ‘মৌচাষিরা যে মধু আহরণ করছেন, তার জন্য আমরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর থেকে মৌচাষিদের সব ধরনের সহযোগিতা করছি।’

উল্লেখ্য, জেলার ১২টি উপজেলায় ২০ হাজার মৌ-বাক্স স্থান করা হয়েছে। আর এ বছর এই মৌ-বাক্স থেকে প্রায় ৯০ মেট্রিক টন মধু সংগ্রহ হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap