ভূঞাপুরে ইউপি নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনার মামলায় ৩৫ জন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলায় গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় ৩৫ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

রবিবার দুপুরে টাঙ্গাইল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাউদ হাসান তাদের জামিন আবেদন বাতিল করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও সাবেক চেয়ারম্যান আকবর হোসেনসহ ৪১ জনের নাম উল্লেখ করে ২ হাজার ৫০০ থেকে ৩০০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। গত ২৬ ডিসেম্বর ৬টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে উপজেলার ফলদা ইউনিয়নে একটি কেন্দ্রে নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

টাঙ্গাইল আদালতের পরিদর্শক তানবীর আহম্মেদ সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামিরা হাইকোর্ট থেকে ৬ সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনে ছিলেন। তারা রবিবার নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

ইউপি নির্বাচনে উপজেলার ফলদা ইউনিয়নে গুজব ছড়িয়ে নির্বাচনে সহিংসতা, সরকারি কাজে বাধা, নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের ওপর হামলা চালানো হয়।

এছাড়া কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব, পুলিশ সদস্যসহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিকেও অবরুদ্ধ রাখা হয়। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য তাদের উদ্ধার করে। পরে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে।

মামলার তদন্ত শেষে ৪১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২৫০০-৩০০০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এতে ৪১ আসামির মধ্যে ফলদা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আকবর হোসেন, ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আব্দুল হান্নানসহ ৩৫ জন হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের জামিনে ছিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভূঞাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম জানান, নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় মামলা করা হয়। তদন্ত শেষে ৪১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২৫০০-৩০০০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেওয়া হয়। এরমধ্যে এজাহারনামীয় ৩৫ জন নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap