প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে গত ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২২ বুধবার প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে আয়োজিত হয় বিশেষ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর মাননীয় ভাইস চেয়ারম্যান, জনাব মোঃ রায়হান আজাদ এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় কোষাধ্যক্ষ, প্রফেসর ড. ইফফাত জাহান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ নূরন্নবী মোল্লা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর মাননীয় ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মোঃ রায়হান আজাদ ভাষা শহীদদের  প্রতি  গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিসংঘে প্রথম বাংলা ভাষায় বক্তব্য প্রধান করে মাতৃভাষার মর্যাদা বিকশিত করেছেন। তিনি আরও বলেন-জাতীয় জীবনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের ভূমিকা অপরিসীম। সেজন্য শিক্ষার্থীদের বাংলা ভাষাকে অন্তরে ধারণ করে ভবিষ্যতে এগিয়ে যেতে এবং সর্বাবস্থায় বাংলা ভাষার ব্যবহার করতে তিনি উৎসাহিত করেন। পরিশেষে শিক্ষক মন্ডলীদের বাংলা ভাষার ভূমিকা সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের অবগত করতে বলেন এবং শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

বিশেষ অতিথি, মাননীয় কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. ইফফাত জাহান তাঁর বক্তব্যে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন ও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে মাতৃভাষা দিবসকে আনুষ্ঠানিকতায় বেধে না রেখে অন্তরে ধারণ করতে অনুরোধ করেন। বাংলা ভাষার মিশ্র ব্যবহার এবং অপসংস্কৃতি থেকে বিরত থাকতে ছাত্র-ছাত্রীদের অনুরোধ করেন এবং শিক্ষক মন্ডলী ও শিক্ষার্থীদের বাংলা ভাষার চর্চা করে যেতে উৎসাহিত করেন। পরিশেষে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলা ভাষার মর্যদা অক্ষুণ্ণ রাখতে বাংলার চর্চা এবং বাংলা ভাষাকে আরও অলংকৃত করতে সর্বস্তরে বাংলা ভাষার প্রয়োগে নিরলস ভাবে কাজ করে চলছেন।

প্রফেসর ড. নাশিদ কামাল, ডিন, স্কুল অব বিজনেস, তাঁর বক্তব্যে ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন যোদ্ধাদের অবদান তথ্যচিত্রের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলেন এবং সেই সাথে ভাষা যোদ্ধাদের সাথে তাঁর পারিবারিক সম্পর্কের বিষয়ে আলোচনা করেন।পরিশেষে, ভাষা শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

প্রফেসর ড. শুভময় দত্ত, ডিন, স্কুল অব সায়েন্স, তার বক্তব্যে মাতৃভাষার পটভূমি এবং ছাত্র আন্দোলনের ভূমিকা নিয়ে বিশেষ আলোচনা করেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং সর্বপরি বাংলা ভাষার মর্যদা অক্ষুণ্ণ রয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ট্রান্সজেন্ডার শিক্ষার্থী সারাহবান তোহুরা সারাহ তার বক্তব্যে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষকে অবহেলিত সম্প্রদায়কে উচ্চশিক্ষায় উৎসাহিত ও সুযোগ করে দেয়ার জন্য বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস চেয়ারম্যান, মাননীয় উপ-উপাচার্য ও মাননীয় কোষাধ্যক্ষ তাকে শুভেচ্ছা স্মারক দিয়ে উৎসাহিত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিষ্ট্রার প্রফেসর ড. মোঃ নজরুল ইসলাম, ভাষা শহীদের প্রতি গভীর সম্মান প্রদর্শন পূর্বক সকলকে একুশের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে মেধা ও মনন বিকশিত করতে আহ্বান করেন।

প্রফেসর এস. কে. ফিরোজ উদ্দীন আহমেদ, বিভাগীয় প্রধান, ফার্মেসী বিভাগ তাঁর বক্তব্যে বলেন- একুশ আমাদের গর্ব এবং একুশ আমাদের অহংকার। তিনি একুশের তাৎপর্য সম্পর্কে তুলে ধরেন এবং ভাষা শহীদের প্রতি আন্তরিকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি, মাননীয় উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. নুরুন্নবী মোল্লা তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই রক্তের দাম দিয়ে অর্জিত ভাষা শহীদের প্রতি গভীর সম্মান ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি ভাষা আন্দোলনের পটভূমি এবং তৎকালীন ভাষা শহীদের অবদান সম্পর্কে বিষদ আলোচনা করেন। সেই সাথে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ দিবসকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইউনেস্কোতে বার্তা প্রেরণের ইতিহাস সবিস্তারে তুলে ধরেন। পরিশেষে, তিনি ভাষা শহীদ, ৭১ এর শহীদ মুক্তিযোদ্ধা এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের জন্য দোয়া ও আবেগময় মোনাজাত পরিচালনা করেন।

অনুষ্ঠানের শেষাংশে ভাষা শহীদের প্রতি গভীর সম্মান প্রদর্শন পূর্বক, উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন, মানবিক বিভাগের প্রধান এবং প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কালচারাল ক্লাবের আহ্বায়ক, সহযোগী অধ্যাপক ড. নাসরিন আক্তার ।

অনুষ্ঠানটি সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ভেরিফাইড পেজ থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap