আফগানিস্তান ৮ উইকেটে শেষ টি-টোয়েন্টি জিতে ১-১ এ সিরিজ ড্র করল

ক্রীড়া ডেস্কঃ বিশ ওভারের ম্যাচে তিন ক্যাচ মিস! তাও আবার এমন ম্যাচে যেখানে স্কোরবোর্ডে পুঁজি মাত্র ১১৫ রান। এমন ম্যাচ জেতা উচিত কিনা সেটা নিয়ে বিরাট প্রশ্ন তোলা যায়। অবশ্য প্রশ্নকর্তার প্রশ্ন তোলাও অনর্থক। ওই পুঁজি নিয়ে বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে।

ভুলে ভরা ম্যাচ হেরে সিরিজ হাতছাড়া করেছেন মাহমুদউল্লাহরা। আফগানিস্তান ৮ উইকেটে শেষ টি-টোয়েন্টি জিতে ১-১ এ সিরিজ ড্র করেছে। দেশে ফেরার আগে রশিদ-নবীরা জয়ে রাঙালো সফরের শেষ ম্যাচ।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে অতিথিদের উড়িয়ে দিয়ে আত্মবিশ্বাসের রেণু ছড়িয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু একদিনের ব্যবধানে পাল্টে গেল অনেক কিছু। কেমন যেন পাত্তা না দেওয়ার ভাবটা চলে এসেছিল শরীরি ভাষায়। আলগা মনোভাব ছিল স্পষ্ট। স্বাগতিকদের জন্য এই মনোভাবটাই কাল হয়ে দাঁড়ালো!

আফগানিস্তানের বোলাররা খুব একটা ভোগাতে পারেনি। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের শট নির্বাচন ছিল বাজে। ভুল করে খেলেছেন এলোমেলো সব শট। ইনিংস বড় করার তাড়ণাও পাওয়া যায়নি। ফজলহক ফারুকি ও আজমতউল্লাহ ওমারজাই নেন ৩টি করে উইকেট।

প্রথম ম্যাচে নাসুমের এক স্পেলেই লণ্ডভণ্ড আফগানিস্তান। ৪ ওভারে ১০ রানে বাঁহাতি স্পিনার নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। আজও একই শুরুর সুযোগ ছিল তার। কিন্তু হজরতউল্লাহ জাঝাইয়ের ক্যাচটা নিতে পারেননি তিনি। এরপর আফগানিস্তান ম্যাচের ভিন্ন ভিন্ন সময়ে আরো দুই ক্যাচ দেন আফিফ ও নাঈমের হাতে। দুজনই ক্যাচ ছেড়ে বুঝিয়ে দেন ফিল্ডিংয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যেতে অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে তাদের।

সুযোগ পেয়ে আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানরা হতাশ করেননি। উইকেটের চারিপাশে চার-ছক্কার ফুলঝুরি ছুটিয়ে অনায়াস জয় তুলে নেয়। জাঝাই ৪৫ বলে ৩ চার ও ৫ ছক্কায় করেন অপরাজিত ৫৯ রান। উসমান ঘানি ৪৮ বলে করে ৪৭ রান। ৫ চার ও ১ ছক্কা মারেন তিনি। উইনিং শটটা আসে উসমান রাসুলির ব্যাট থেকে। নাসুমকে মিড উইকেট দিয়ে উড়িয়ে বাংলাদেশকেই যেন উড়িয়ে দেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

শেষ ম্যাচ হেরে বিপদ বাড়িয়েছে বাংলাদেশ। এই হারে ২ রেটিং পয়েন্ট হারিয়ে টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে দশে নেমে গেছে বাংলাদেশ। ২৩৫ পয়েন্ট নিয়ে আফগানিস্তান এখান সপ্তম স্থানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap