ঘাটাইলে নিষিদ্ধ নেশাজাতীয় ট্যাবলেটসহ দুই যুবককে আটক

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে নিষিদ্ধ ৫০০ পিস নেশাজাতীয় ট্যাবলেটসহ দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার (৯ মে) সন্ধার সময় ঘাটাইল উপজেলার দিগর ইউনিয়নের দেওনাপাড়া বাজার এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
আটককৃতরা হচ্ছেন, ঘাটাইল উপজেলার হামিদপুর এলাকার গৌর সাহার ছেলে অমল ডাক্তার, যিনি দিগর ইউনিয়নের দেওনাপাড়া বাজারে ‘তনুশ্রী মেডিকেল হল’ নামক ওষুধের দোকান থেকে নিষিদ্ধ এসব মাদকজাতীয় ওষুধ পাইকারি ও খুচরা বিক্রি করতেন এবং ধলাপাড়া এলাকার ইব্রাহীমের ছেলে হোসেন আলী ‘তনুশ্রী মেডিকেল হল’ নামক ওষুধের দোকান থেকে দীর্ঘদিন যাবত নিষিদ্ধ মাদকজাতীয় ওষুধ টাপেন্টাডল খুচরা ও পাইকারি বিক্রি করতেন। গতকাল ধলাপাড়া এলাকার ইব্রাহীমের ছেলে হোসেন আলী নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল কিনে নিয়ে যাওয়ার সময় সন্দেহবশত এলাকাবাসী তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।
জিজ্ঞাসাবাদে হোসেন আলী স্বীকার করে যে সে তনুশ্রী মেডিকেল হলের মালিক অমলের কাছ থেকে ৫০০ পিস নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট বিক্রির জন্য পাইকারি কিনে নিয়ে যাচ্ছিলো। পরে তার দেহ তল্লাশী করে ৫০০ পিস নেশাজাতীয় (আমদানী নিষিদ্ধ পেন্টাডল) ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।
পরবর্তীতে এলাকাবাসী ঘাটাইল থানা পুলিশকে অবহিত করলে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার সময় এসআই মোঃ সাজ্জাদ হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ দেওনাপাড়া বাজারে এসে অমল ও হোসেনকে আটক করে নিয়ে যায়।
এসআই মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান, আটকৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়েরের পরবর্তীতে মঙ্গলবার টাঙ্গাইল আদালতে প্রেরণ করা হবে।
উল্লেখ্য: ঘাটাইল উপজেলায় ইয়াবা ও হেরোইনের বিকল্প হিসেবে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই ৩/৪ গুন বেশী দামে ব্যথানাশক ট্যাপেন্টাডল গ্রুপের ট্যাবলেট অবাধে বিক্রি করছেন কিছু অসাধু ওষুধ দোকানীরা। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মাদকের বিরুদ্ধে তৎপর থাকায় মাদক সেবনকারীরা নেশা ও ঘুমের চাহিদা মেটাতে এই ওষধগুলি সেবন করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap