কালিহাতীতে শিক্ষককে লাঞ্ছিত ও ছাত্রীদের উক্ত্যক্তকারীর শাস্তির দাবিতে শিক্ষারর্থীদের সড়ক অবরোধ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও মারধর এবং ছাত্রীদের উক্ত্যক্তকারী শিশির (২৩) নামে এক যুবকের শাস্তি ও বিচারের দাবিতে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এতে মহাসড়কের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থেকে এলেঙ্গা দুই লেনে প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বেলা ১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত উপজেলার মহাসড়কের সল্লা বাসস্ট্যান্ডে শিশিরের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন সল্লা সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ সরিয়ে বিদ্যালয় মাঠে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে বখাটের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে সকাল ১১টায় সল্লা সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুশান্ত কুমার দীপককে বিদ্যালয়ের ভেতরেই শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও মারধর করেন শিশির। পরে শিক্ষককে মারধরের প্রতিবাদে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলন করেন এবং শিশিরকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করে শাস্তি ও বিচারের দাবি জানান।

জানা যায়, শিশির সল্লা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আবু নাসিরের ছেলে। ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের বিভিন্ন সময়ে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে রাস্তা-ঘাটে এমনকি স্কুলে প্রবেশ করে দীর্ঘদিন ধরে ইভটিজিং করে আসছিল শিশির। দুদিন আগে এ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুশান্ত কুমার দীপক ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করেন। এরই জেরে বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলে প্রবেশ করে তাকে মারধর ও লাঞ্ছিত করে পালিয়ে যান শিশির।

তাৎক্ষণিক এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা একত্র হয়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপ ও শিশিরকে গ্রেপ্তারের আশ্বাসে অবরোধ থেকে সরে যায় তারা। পরে দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত তারা বিদ্যালয় মাঠে অবস্থান নেন।

এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা ও সল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম জানান, বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার সময় মাঝে মধ্যেই শিশির ছাত্রীদের উত্যক্ত করে। তাকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি করছি।

সল্লা সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছাদেক আলী মোল্লা জানান, তাৎক্ষণিকভাবে শিক্ষক লাঞ্ছিতের ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে শিক্ষকদের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে শিশিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, শিক্ষককে লাঞ্ছিত ও মারধর এবং ছাত্রীদের ইভটিজিংয়ের ঘটনার বিষয়ে শুনেছি। তবে ওই শিক্ষক এখনও কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সফিকুল ইসলাম জানান, দুপুরে শিক্ষার্থীরা সল্লা বাসস্ট্যান্ডে মহাসড়কে অবরোধ করার চেষ্টা করছিল। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এসময় যানজটের সৃষ্টি হলেও থেমে থেমে যানবাহন চলাচল করেছে। তবে বর্তমানে কোনো যানজট নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap