বাসাইলে ৯ বছরের শিশুকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর মৃত্যু, ৩ জন গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামে বাড়িতে একা পেয়ে ৯ বছর বয়সের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে কয়েকজন বখাটে পালাক্রমে ধর্ষণ করে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।

বাড়িতে ফিরে ঝুলন্ত অবস্থায় মেয়েকে দেখে মায়ের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। পরে হাসপাতালে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তে ধর্ষণের আলামত মিললে থানায় মামলা করা হয়। দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, ভাটপাড়া গ্রামের স্বপন মন্ডলের ছেলে গোবিন্দ মণ্ডল (১৯), আনন্দ মণ্ডলের ছেলে চঞ্চল চন্দ্র মণ্ডল (১৭) ও লালিত সরকারের ছেলে বিজয় সরকার (১৬)।

পুলিশ সুপার সিরাজ আমিন জানান, মেয়েটি নাচ শিখেছিলো।  ওর দেখে বাড়ির পাশের গোবিন্দ মণ্ডল, চঞ্চল চন্দ্র মণ্ডল ও বিজয় সরকার আকৃষ্ট হয়। বিকৃত যৌন লালসা তাদের মনে পোষণ করে মেয়েটিকে বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করতো। দুই মাস আগে মেয়েটি তার মায়ের কাছে বিষয়টি খুলে বলে। কিন্তু আসামিরা বখাটে ও প্রভাবশালী হওয়ায় মা তাদের তেমন কিছু বলেননি। তারা ওর মায়ের গতিবিধি অনুসরণ করতো। আসামিরা জানতে পারেন মেয়েকে বাড়িতে একা রেখে তার মা তার ছেলেকে স্কুল ছুটির পর এগিয়ে আনতে যায়।

পুলিশ সুপার জানান, তাদের বহনকৃত অ্যাম্বুলেন্স গাজীপুর পর্যন্ত গিয়ে নষ্ট হলে তাকে সাভার এনাম মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৯ মে মেয়েটির মৃত্যু হয়। ওই দিনই বাসাইল থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলার পর লাশটি ময়না তদন্ত করা হয়। ৪ জুন ময়না তদন্তের রির্পোটে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়। ওই দিনই মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে বাসাইল থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পিবিআই স্বউদ্যোগে তদন্তের জন্য গ্রহণ করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক খন্দকার আশরাফুল কবির তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আসামিদের গ্রেপ্তার করেন।

পুলিশ সুপার বলেন, আসামিরা নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। জবানবন্দি না দিলে মামলা তদন্তের স্বার্থে আদালতে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap