ধনবাড়ীতে বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষ আহত-১৫

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে উপজেলা ও পৌর বিএনপির সম্মেলনকে কেন্দ্র করে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী ফকির মাহাবুব আনাম স্বপন ওরফে স্বপন ফকির গ্রুপ এবং মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র একই আসনের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী সরকার শহিদুল ইসলাম ওরফে সরকার শহিদ গ্রুপের মাধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার (১৮ জুলাই) রাতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে স্বপন ফকির গ্রুপের ১০/১২ জনসহ উভয় গ্রুপের ১৫ জন আহত হয়েছে।

এ ঘটনায় ধনবাড়ী পৌর বিএনপির আহবায়ক এসএম সোবহান বাদি হয়ে সরকার শহিদ গ্রুপের বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন তালুকদার মিন্টুকে প্রধান আসামী এবং মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র সরকার শহিদুল ইসলামসহ ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত নামা আরও ৬/৭ জনকে আসামী করে ধনবাড়ী থানায় মামলা করেছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই প্রধান আসামী কামাল হোসেন তালুকদার মিন্টুসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও উপজেলা বিএনপি জানায়, আগামী ২২ জুলাই উপজেলা ও পৌর বিএপির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। সম্মেলনকে সফল করতে গত সোমবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যায় উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এম আজিজুর রহমান ও পৌর বিএনপির আহবায়ক এসএম সোবহানের নেতৃত্বে স্বপ্ন ফকির গ্রুপের নেতাকর্মীরা উপজেলা সদরে একটি মিছিল বের করে।

মিছিল শেষে এসএম সোবহানের ধনবাড়ীস্থ ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি সভা হয়। সভা শেষে নেতাকর্মীরা বাড়ি ফেরার সময় সরকার শহীদ গ্রুপের কামাল হোসেন তালুকদার মিন্টুর নেতৃত্বে এক দল দেশিয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে তাঁদের উপর হামলা চালায়। এ সময় স্বপন ফকির গ্রুপের পৌর বিএনপির আহবায়ক এসএম সোবহান, তাঁর ছেলে মো. সিব্বির সিমান্ত , ভাগ্নে আদিত্ব রহমান, ভগ্নিপতি বাবুল মিয়া এবং পাইস্কা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বাবুল ওরফে ধলা বাবুলসহ ১০/১২ নেতাককর্মীসহ উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে গুরুতর ৭ জনকে উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বাকিদের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

ধনবাড়ী উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এম আজিজুর রহমান বলেন, ‘সম্মেলন সফল করার লক্ষ্যে আমরা প্রতিদিনই মিছিল-সমাবেশ করছি। তারই ধারাবাহিতকায় সোমবার সন্ধ্যায় মিছিল বের করা হয়। মিছিল শেষে পৌর বিএনপির আহবায়ক এসএম সোবহানের ধনবাড়ীস্থ ব্যক্তিগত কার্যালয়ে আলোচনা চলাকালে মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র সরকার শহিদের নির্দেশে ধনবাড়ী উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ধোপাখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কামাল হোসেন তালুকদারের নেতৃত্বে ৩০/৩৫ জন রামদা, ফালা, চাইনিজ কুড়ালসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমাদের পৌর বিএনপির আহবায়কসহ ১০/১২জন গুরুতর আহত হয়।

সরকার শহিদ গ্রুপের ধনবাড়ী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফেজ খাইরুল ইসলাম তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমাদের নিকট কোন অস্ত্র ছিলো না। বরয় ওরাই অস্ত্র নিয়ে মহোড়া দেয় এবং আমাদের গ্রুপের উপজেলা বিএপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন তালুকদারের উপর ধনবাড়ীর তেতুলতুলা নামকস্থানে ওই গ্রুপের যুব দলেন নেতা রতন ফকির, হযরত আলী শফিকুল ইসলাম ওরফেধলা বাবলুদের নেতৃত্বে ওরা হামালা চালায়।

গ্রেপ্তার কৃতরাহলেন, কামাল হোসেন তালুকদার মিন্টু, শাহজানা আলী সাজু, হেমেহদী হাসান, মেরাজ উদ্দিন, রুবেল মিয়া, আ. মোতাবেল ও আল আমিন হোসেন

এ ব্যাপারে ধনবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. চান মিয়া জানান, বিএনপির দুই গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনয় থানায় মামলা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামীসহ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করে গতকাল মঙ্গলবার টাঙ্গাইল আদালতে চালান দেয়া হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap