ঘাটাইলে প্রশ্নবিদ্ধ জনশুমারি নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় অনেকের ক্ষোভ প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ জনশুমারি ও গৃহগণনার কাজ শেষে পরিসংখ্যান ব্যুরোর দেওয়া তথ্য মতে, বাংলাদেশে মোট জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬। বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের কথা থাকলেও গণনাকারীরা টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার অনেক বাড়িতেই যাননি বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে। তাঁরা কোন দেশের বাসিন্দা, তাও জানতে চেয়েছেন ফেসবুক বন্ধুদের কাছে।

জাহান কলি নামে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন, ‘এবার আদম গণনায় আমাদের বাসায় গণনাকারীরা কেউ আসে নাই। আমাকে বাদ দিয়া মোট জনগণ হিসেব করার জন্য ধন্যবাদ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জাহান কলির বাসা ঘাটাইল পৌরসভার কলেজ মোড় এলাকায়। এ বিষয়ে কথা হয় তাঁর বাবা শাহজাহান তালুকদার ও মা সালেহা চৌধুরীর সঙ্গে। তাদের ভাষ্য, কোনো গণনাকারীর দেখা পাননি তারা। তাদের পরিবারে লোক সংখ্যা মোট সাতজন।

আতা বজলু নামে একজন নাগরিক ফেসবুকে লিখেছেন, আমার বাড়ি, বাসা কোথাও জনশুমারির লোক আসেনি। আমরা কোন দেশের বাসিন্দা? কথা হয় আতা বজলুর সঙ্গে। তিনি জানান, তার বাড়ি ঘাটাইল উপজেলার আঠারোনানা গ্রামে। পরিবারে সদস্য সংখ্যা চার।

অর্চনা পাল নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, অনেকের বাসায়ই কর্তব্যরতরা আসেননি। এগুলো দেখার কি কোনো কর্তৃপক্ষ নেই?

রুহুল আমিন খান লিখেছেন, আমাদের ভাইবোন কারও কাছেই জনশুমারির লোক আসেনি। এখন আমরা বাংলাদেশের স্পেশাল (বিশেষ) নাগরিক।

জনশুমারির তথ্য প্রকাশের ঘন্টাখানেকের মধ্যে ঘাটাইলের অর্ধশতাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারীর ওয়াল ও কমেন্ট বক্সে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসের তথ্য মতে, ঘাটাইলে মোট জনসংখা ৪ লাখ ৮০ হাজার। গণনাকারীর সংখ্যা ছিল ১ হাজার ১২৩, সুপারভাইজার ছিল ২০৬ জন।

উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, গণনাকারীরা বাড়ি বাড়ি যায়নি বলে এখন কেউ অভিযোগ করলে ঠিক হবে না। কারণ গণনা শেষ করার পরও ইউনিয়ন থেকে ও এলাকার মসজিদে মাইকিং করা হয়েছে। কেউ বাদ পরলে জানাতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap