টাঙ্গাইলে ৫৫ বছর বয়সী নারীর ঘর থেকে ইউপি সদস্যকে আটক করেছে এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা ইউনিয়নের শ্যামার ঘাট এলাকায় ৫৫ বছর বয়সী এক নারীর ঘর থেকে ছিলিমপুর ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য সোহাগ মিয়াকে(৩৫) আটক করেছে এলাকাবাসী। বুধবার(৩ আগস্ট) ভোরে সোহাগকে ওই নারীর ঘর থেকে আটক করা হয়।

পরে সোহাগের মামা নুরজামালের জিম্মাদারীতে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। বিকালে বিষয়টি নিয়ে সালিশি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। ইউপি সদস্য সোহাগ মিয়া চরপাকুল্ল্যা গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, সোহাগের মামার বাড়ি হওয়ার সূত্রে শ্যামারঘাট এলাকায় তার অবাধ যাতায়াত রয়েছে। ভুক্তভোগী নারীর সাথে ইউপি সদস্য সোহাগের দীর্ঘদিনের অনৈতিক সম্পর্ক ছিল। মঙ্গলবার রাতে সোহাগ ওই বিধবা নারীর ঘরে যান। সেখানে ভোর ৪ টা পর্যন্ত অবস্থান করেন। এসময় এলাকাবাসী তাদের আটক করে।

বিধবা নারী জানান, চার বছর আগে তার স্বামী মারা যান। এরপর থেকে সোহাগ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক চালাচ্ছেন। মঙ্গলবার দিনগত রাত ১২ টায় সোহাগ তার ঘরে যান এবং ৪ টা পর্যন্ত অবস্থান করেন। পরে এলাকাবাসী তাদের আটক করে।

ছিলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডের নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য আটককৃত সোহাগ মিয়া জানান, তিনি যা করেছেন ভুল করেছেন। এখন বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।

দাইন্যা ইউপি চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওই নারীর পক্ষ থেকে এখনও তাদের কাছে লিখিত কোন অভিযোগ করা হয়নি। তবে ওই নারীর এক আত্মীয় আটক ইউপি সদস্যের সাথে ওই নারীর বিয়ে দেওয়ার প্রস্তাব এনেছেন। ওই নারী যে সিদ্ধান্ত নেন- সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap