মধুপুরে দুই এসএসসি পরীক্ষার্থীর বাল্য বিয়ে বন্ধ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া দাখিল পরীক্ষার প্রথম বিষয় কুরআন মাজিদ পরীক্ষা দিয়েই শুক্রবার বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা ছিল দুই শিক্ষার্থীর। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসনের উদ্যোগে বিয়ে দুটি বন্ধ হয়।

জানা গেছে, শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) মধুপুর পৌর এলাকার নাগবাড়ীর বাসিন্দা কছিম উদ্দিন কছুর প্রবাসী ছেলের সঙ্গে বিয়ের কথা ছিল রাধানগর ব্রাহ্মণবাড়ীর রাজ্জাকের মেয়ে ও ব্রাহ্মণবাড়ী ফাজিল মাদরাসার দাখিল পরীক্ষার্থী রাশিদা আক্তার রাশির। ‘মধুপুরে প্রথম পরীক্ষা দিয়েই বিয়ের পিঁড়িতে বসছে দুই শিক্ষার্থী’ শিরোনামে শুক্রবার দেশ রূপান্তর অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ হয়।

মূহুর্তের মধ্যে তা ভাইরাল হয়। তা দেখে দুই পক্ষের অভিভাবকরা বিপদের শঙ্কায় অবশেষে বিয়ে স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাদরাসার একজন শিক্ষক ও সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যান।

অপরদিক মধুপুর পৌর এলাকার পুন্ডুরা গ্রামের খন্দকার মনির হোসেন ওরফে ময়নার মেয়ে, মধুপুর আদর্শ ফাজিল মাদরাসার শিক্ষার্থী খন্দকার মিতুর বিয়ের হওয়ার কথা ছিল পাশের উপজেলা ঘাটাইলে। অনেকটা মেজবানি আয়োজনে ধুমধামে শুক্রবার দুপুরে মিতুর বিয়ে হতে যাচ্ছিল। বর আসবে বলে অপেক্ষা চলছিল। খাওয়া ধাওয়া শেষে বিয়ের পর্বের একটু আগে উপজেলা প্রশাসন পুলিশসহ হাজির হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাকির হোসাইন ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক হাজার টাকা জরিমানা করেন। বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাকির হোসাইন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকগণ বাল্যবিয়ের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা পরীক্ষা চলাকালীন মেয়ের বিয়ের আয়োজনকে অভিভাবকদের কাণ্ডজ্ঞানহীন সিদ্ধান্ত বলে অভিহিতি করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap