October 27, 2020, 2:49 am

শনিবার বাদ জোহর চট্রগ্রামে আল্লামা আহমদ শফীর জানাজা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ শায়খুল ইসলাম আল্লামা আহমদ শফী সাহেব হুজুরের জানাজা আগামীকাল জোহরের নামাজের পর হাটহাজারীর দারুল উলুম মাদ্রাসা ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে এ তথ‌্য নিশ্চিত করেন ইসলামী ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আলতাফ হোসেন।
এর আগে সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আল্লামা শফী।

মাওলানা আলতাফ হোসেন জানান,আল্লামা শফীর মরদেহ গোছল-কাফনের জন্য হাসপাতাল থেকে ঢাকার ফরিদাবাদ মাদ্রাসায় নেওয়া হয়েছে। রাতেই তার লাশ হাটহাজারী মাদ্রাসায় নেওয়া হবে।

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ফজর নামাজের পর থেকে জোহর নামায পর্যন্ত সবার দেখার জন‌্য হাটহাজারী মাদ্রাসার কনযুদ্দাকায়েক শ্রেণি কক্ষে হুজুরের লাশ রাখা হবে। জানাযা শেষে মাদ্রাসা ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে বায়তুল আতিক জামে মসজিদের সামনের কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানান আলতাফ হোসেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে চট্টগ্রাম মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটের (আইসিইউ) ৮ নম্বর বেডে স্থানান্তর করা হয়। সেখান থেকে শুক্রবার বিকেলে সাড়ে চারটার দিকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেওয়া হয়।

পুরান ঢাকার গেন্ডারিয়ায় আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আল্লামা শফীকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

১০৩ বছর বয়সী আল্লামা আহমদ শফী দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত দুর্বলতার পাশাপাশি ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।

অসুস্থ অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে ছাত্র আন্দোলনের মধ্যে হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালকের পদ থেকে অব্যাহতি নেন আহমদ শফী।

আল্লামা আহমদ শফীর জন্ম চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পাখিয়ারটিলা গ্রামে। তার বাবার নাম বরকম আলী। মা মোছাম্মাৎ মেহেরুন্নেছা বেগম। আহমদ শফীর দুই ছেলে ও তিন মেয়ে। তার বড় ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ পাখিয়ারটিলা কওমি মাদ্রাসার পরিচালক। ছোট ছেলে আনাস মাদানি হেফাজতে ইসলামের প্রচার সম্পাদক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap