মধুপুরের প্রথম অনলাইন সংবাদপত্র

রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:৩২ পূর্বাহ্ন

First Online Newspaper in Madhupur

শিরোনাম :
টাঙ্গাইলে মীরের বেতকা নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার উদ্যোগে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলের ডা. আব্দুল হামিদের কাছে দুর্গম পাহাড় থেকে চিকিৎসা নিতে আসেন আদিবাসীরা মির্জাপুরে অতিরিক্ত মদপানে দুজনের মৃত্যু বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাকে হত্যা করা হয়েছে-কাদের সিদ্দিকী ময়মনসিংহের সাজাপ্রাপ্ত আসামী টাঙ্গাইলে গ্রেফতার টাঙ্গাইলে বিডি ক্লিন এর উদ্যোগে লৌহজং নদী পরিস্কার মির্জাপুরে ৩টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ আন্ত: জেলা চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার মধুপুরে ৩ দিনব্যাপী অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন মির্জাপুর প্রেসক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত বিপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়ন ফরচুন বরিশাল

ভূঞাপুরে শত বছরের স্কুলের গেইটে মুক্তিযোদ্ধার নাম বাদ দিয়ে অন্য নামকরণের অভিযোগ

সংবাদ দাতার নাম
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইল জেলার ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের শত বছরের পলশিয়া রানী দিন মনি উচ্চ বিদ্যালয়ের গেইট নির্মাণে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নাম বাদ দিয়ে চাঁন মাহমুদ তালুকদার নামে নামকরণের অভিযোগ উঠেছে। শহীদের নাম না দিয়ে ব্যক্তির নামে গেইট নির্মণের প্রতিবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, এলাকাবাসী ও বিদ্যালয়ের প্রাত্তন শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, শত বছরের এ উচ্চ বিদ্যালয়টি ১৯১৮ সালে স্বর্গীয় হেমন্দ্র রায় চৌধুরী তার মায়ের নামকরণে প্রতিষ্ঠা করেন। ইতিহাস ঐতিহ্যের সাক্ষী হয়ে এই বিদ্যালয়ের ৫৭ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছিলেন মহান মুক্তিযুদ্ধে। দেশ স্বাধীনের সেই যুদ্ধে শহীদ হয়েছিলো এই বিদ্যালয়ের শহীদ নজরুল ও শহীদ আমজাদ নামের দুইজন কিশোর। তাদের অবদান স্বরণীয় রাখতে এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে যুদ্ধের ইতিহাস জানানোর উদ্দেশ্যে গত ২০২১ সালের ১৫ই সেপ্টেম্বর বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মো. মতিয়ার রহমান ও তৎসময়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির দায়িত্বে থাকা রহিজ উদ্দিন আকন্দের স্বাক্ষরিত একটি আবেদন দেয়া হয়েছিলো স্থানীয় সাংসদ ছোট মনির এমপির কাছে। যাতে এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধাগণ অবগত থাকে। কিন্তু বর্তমান সভাপতি চাঁন মাহমুদ তালুকদার দায়িত্ব পাওয়ার পরেই মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদের ইতিহাস মুছে ফেলার নীল নকশা করেছে বলে মনে করেন প্রাত্তন শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধারা। ধারাবাহিকভাবে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের দিয়ে রেজুলেশনের মাধ্যমে একটি গেইট নির্মাণ করে মূল ফটকে শহীদের নামের পরিবর্তে নিজ নাম “চাঁন মাহমুদ তালুকদার তোরণ” নির্মাণ করেন। যা দেখে মুক্তিযোদ্ধা, এলাকাবাসী ও প্রাত্তন শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদ জানান। এমন অনিয়মের বিষয়টি বিভিন্ন মহলে জানাজানি হয় এবং গেট নির্মানের কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নাম না দিয়ে নিজের নামে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নামকরণের অভিযোগের বিষয়টি জানতে বারবার টেলিফোন করলেও চাঁন মাহমুদ তালুকদার ফোন ধরেননি।

প্রতিষ্ঠানরে প্রধান শিক্ষক মো. মতিয়ার রহমানে সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ২০২১ সালের ১৫ই সেপ্টেম্বর পলশিয়া রানী দিন মনি উচ্চ বিদ্যালয়ের গেটটি নির্মাণে আমাদের শিক্ষার্থী দুজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামে নামকরণ করার কথা ছিল। তবে কেন বর্তমান সভাপতির নামে তোরণ নির্মাণ করা হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন যে তোরণ নির্মাণ হচ্ছে সে সম্পর্কে আমি কিছু জানি না এবং কিছু বলতে পারবো না।

তবে ভূঞাপুর উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মজিদ মিয়া তীব্র নিন্দা করে জানান, ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে এই বিদ্যালয় হতে প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিল। তাদের মধ্যে দু’জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল ঐ শহীদদের নামে একটি তোরণ নির্মাণ করার। তবে তোরণ নির্মাণের কাজ শুরু হলেও তোরণটির নামকরণ করা হচ্ছে বিতর্কিত একজন ব্যক্তি চাঁন মাহমুদ তালুকদারের নামে। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং সাবেক উপজেলা কমান্ডার হিসেবে এলাকার জনগণ ও মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। শহীদের নামে নামকরণের জোর দাবি জানিয়ে তিনি আরো বলেন, বিষয়টি মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অসম্মানজনক বিধায় সংশিষ্ট সকলের নিকট আমারও দাবি তোরণটি শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামেই নামকরণ করা হোক।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. মনিরুজ্জামান বলেন, কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা, এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে গেট নির্মাণের বিষয়টি জেলা প্রশাসক স্যারের কাছে অভিযোগ করেছেন একটা কপি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছেও পাঠিয়েছেন ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এই বিষয়ে, উনি আমাকে বলেছেন ব্যবস্থা নেয়ার জন্য। আমার সাথে প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির লোকদের কথা হয়েছে বিষয়টি আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্যারকে অবগত করবো।এলাকার অনেকে মনে করেন যে, স্কুলের প্রধান শিক্ষক এর কারসাজিতে শহীদদের নাম চিরতরে মুছে ফেলার নীল নকশার অংশ।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:০৯ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:১৪ অপরাহ্ণ
  • ১৬:২২ অপরাহ্ণ
  • ১৮:০৫ অপরাহ্ণ
  • ১৯:১৮ অপরাহ্ণ
  • ৬:২০ পূর্বাহ্ণ
©2024 All rights reserved
Design by: POPULAR HOST BD
themesba-lates1749691102
Verified by MonsterInsights