মধুপুরের প্রথম অনলাইন সংবাদপত্র

রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন

First Online Newspaper in Madhupur

শিরোনাম :
টাঙ্গাইলে মীরের বেতকা নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার উদ্যোগে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলের ডা. আব্দুল হামিদের কাছে দুর্গম পাহাড় থেকে চিকিৎসা নিতে আসেন আদিবাসীরা মির্জাপুরে অতিরিক্ত মদপানে দুজনের মৃত্যু বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাকে হত্যা করা হয়েছে-কাদের সিদ্দিকী ময়মনসিংহের সাজাপ্রাপ্ত আসামী টাঙ্গাইলে গ্রেফতার টাঙ্গাইলে বিডি ক্লিন এর উদ্যোগে লৌহজং নদী পরিস্কার মির্জাপুরে ৩টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ আন্ত: জেলা চোর চক্রের ৪ সদস্য গ্রেপ্তার মধুপুরে ৩ দিনব্যাপী অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন মির্জাপুর প্রেসক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত বিপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়ন ফরচুন বরিশাল

কোন সরকারের আমলেই মন্ত্রীত্ব পায়নি টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসন

সংবাদ দাতার নাম
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৪৭ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসন থেকে এ পর্যন্ত কোন সরকারের আমলেই মন্ত্রীত্ব পায়নি।

টাঙ্গাইল জেলা ৮টি আসন নিয়ে গঠিত। আসনগুলো হলো- টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী), টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর-গোপালপুর), টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল), টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী), টাঙ্গাইল-৫ (সদর), টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার), টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর), টাঙ্গাইল-৮ (বাসাইল-সখীপুর)।

এই আসনগুলোর মধ্যে একমাত্র মির্জাপুর উপজেলাবাসী তাদের নির্বাচিত সংসদ সদস্যকে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী কোনটাই পায়নি।

অথচ রাজধানী ঢাকার কাছের টাঙ্গাইলের এই উপজেলায় এবারও কোন মন্ত্রী না হওয়ায় এ নিয়ে মির্জাপুর উপজেলাবাসীর মধ্যে রয়েছে চরম হতাশা।

জানা যায়, ঢাকা থেকে ৬৮ কিলোমিটার দূরে এবং টাঙ্গাইল সদর থেকে ২৭ কিলোমিটার পূর্ব দিকে মির্জাপুর উপজেলার অবস্থান। মির্জাপুর উপজেলার উত্তরে সখীপুর উপজেলা, দক্ষিণে ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলা, পূর্বে গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলা, পশ্চিমে দেলদুয়ার উপজেলা।

মির্জাপুরকে বলা হয় উত্তরবঙ্গের দরজা। ১৪টি ইউনিয়ন এবং একটি পৌরসভা নিয়ে মির্জাপুর উপজেলা গঠিত। বিগত ১৯৮২ সালে বাংলাদেশের প্রথম ‘‘উন্নীত থানা’’ হিসেবে তৎকালীন রাষ্ট্রপ্রধান এটি উদ্বোধন করেন।

মির্জাপুর শিক্ষার দিক দিয়ে শুধু টাঙ্গাইল জেলা নয়, বাংলাদেশের অন্যতম উপজেলা। এটি দেশের এ ক্যাটাগরির উপজেলা হিসেবে চিহ্নিত। এই উপজেলার সাক্ষরতার হার ৯১% ও শিক্ষার হার ৮৭%।

এখানে মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজ, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ ও ভারতেশ্বরী হোমস্ (সারা বাংলাদেশে ১ টি), মির্জাপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, মহিলা কলেজ ছাড়াও বহু নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এছাড়া দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের নিয়ন্ত্রণাধীন শৌখিন পশ্চিমা ও প্রাচ্যের শৈল্পিক কারুকার্যে ভরপুর বিশালাকৃতির মহেড়া জমিদার বাড়ি রয়েছে এখানে।

দেশের অর্থনীতিতে গত দুই দশক ধরে মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নে বেশ কিছু ভারি শিল্প কারখানা গড়ে উঠেছে।

এছাড়া মির্জাপুর উপজেলায় উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব দেশ ও বিদেশের সুনাম ছড়িয়েছে। এরা হলেন- রণদা প্রসাদ সাহা বাংলাদেশের বিখ্যাত সমাজসেবক এবং দানবীর ব্যক্তিত্ব ছিলেন। আর. পি. সাহা নামেই তিনি সমধিক পরিচিত ছিলেন। অমৃতলাল সরকার ভারতীয় উপমহাদেশের ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন অন্যতম ব্যক্তিত্ব বিপ্লবী অনুশীলন দলের সদস্য।

প্রতিভা মুৎসুদ্দি বাংলাদেশের একজন শিক্ষাবিদ ও ভাষা সংগ্রামী। শিক্ষাক্ষেত্রে অবদানের জন্য তিনি ২০০২ সালে একুশে পদক লাভ করেন।

জয়াপতি: একজন প্রখ্যাত নারী হিসেবে দেশে সমধিক পরিচিত। এতো কিছু থাকার পরও দেশের কোন সরকারের আমলেই মির্জাপুর উপজেলাবাসী পায়নি কোন মন্ত্রী।

জানা যায়, এ আসনে বিগত ১৯৭০ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি ফজলুর রহমান খান ফারুক, ১৯৭৩ সালে নির্বাচিত এমপি শওকত আলী খান, ১৯৭৯ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি খাজু মিয়া, ১৯৮৬ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি ওয়াজেদ আলী খান পন্নী, ১৯৯১ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি খন্দকার বদর উদ্দিন, ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি একাব্বর হোসেন, ২০২২ সালের (উপ-নির্বাচন) নির্বাচিত এমপি খান আহমেদ শুভ, ২০২৪ সালের নির্বাচনে নির্বাচিত এমপি খান আহমেদ শুভ।

এসব নির্বাচনগুলোতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, সেনা শাসক জিয়াউর রহমান, এরশাদ, খালেদা জিয়া ও শেখ হাসিনার সরকার গঠিত হয়। কিন্তু কোন সরকারের সময়েই মির্জাপুর উপজেলা থেকে নির্বাচিত কোন সংসদ সদস্যের মন্ত্রী পরিষদে স্থান হয়নি।

অথচ টাঙ্গাইল জেলার বাকি উপজেলা থেকে মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী বা উপমন্ত্রী হয়েছে।

বিভিন্ন সরকারের সময়ে জেলার টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী), টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী), টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনগুলো থেকে পূর্ণমন্ত্রী হয়েছে একাধিকবার।

এছাড়া টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল), টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনগুলো থেকে প্রতিমন্ত্রী হয়েছে একাধিকবার।

সর্বশেষ ২০২৪ সালে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গঠিত মন্ত্রী পরিষদে টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসন থেকে দুইবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলাম টিটু বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

এদিকে টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর-গোপালপুর) এবং টাঙ্গাইল-৮ (বাসাইল-সখীপুর) আসনগুলো থেকে উপমন্ত্রী হয়েছে একাধিকবার।

এসব দিক চিন্তা করে এবার মির্জাপুর উপজেলাবাসী অনেক আশা করেছিল মন্ত্রী পরিষদে জায়গা পাওয়ার। কিন্তু তাদের সেই আশা আরও অপেক্ষা বাড়িয়েছে।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:০৯ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:১৪ অপরাহ্ণ
  • ১৬:২২ অপরাহ্ণ
  • ১৮:০৫ অপরাহ্ণ
  • ১৯:১৮ অপরাহ্ণ
  • ৬:২০ পূর্বাহ্ণ
©2024 All rights reserved
Design by: POPULAR HOST BD
themesba-lates1749691102
Verified by MonsterInsights